পরীক্ষা হল শেষ! | “কোথাও কেউ নেই” নাটকের রিভিউ

বহুত দিন থেকেই ব্লগে লেখালেখি করতে পারছিলাম না! সময়ের অভাবে, পড়ালেখার চাপে, পরীক্ষার চাপে! আজ দুপুর ২:৩০ ঘটিকায় শেষ হয়ে গেছে ২য় মেয়াদীর সকল পরীক্ষা। আজ তাই বেশ ফ্রি!
মনটাও ফুরফুরে!!! তাই কোথাও কেউ নাটকটির রিভিউ লিখতে বসে গেলাম!

গত কিছুদিন থেকেই হুমায়ূন আহমেদের এককালের বিখ্যাত নাটক “কোথাও কেউ নেই” নাটকটা নিয়ে পড়ে ছিলাম! পরীক্ষার ফাঁকে ফাঁকেও দেখেছি। এই নাটকের অন্যতম আকর্ষণ ছিল এ যাবৎকালের শ্রেষ্ঠ কয়েকটি চরিত্রগুলোর মধ্যে অন্যতম চরিত্র “বাকের ভাই” চরিত্রটি।

বিভিন্ন সময় মানুষের কাছে এ সম্পর্কে এত শুনেছি যে দেখার ইচ্ছা ছিল অনেক আগে থেকেই। ফলশ্রুতিতে সেদিন আমারনাটক.কম থেকে আস্তে আস্তে পুরো ২০টি পর্বই ডাউনলোড করে ফেলি। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে নাটকটি ডাউনলোডের সময় কোন রিজিউম সাপোর্ট ছিল না। বাংলাদেশের কারেন্টের যা অবস্থা তাতে এক পর্বই আমাকে কয়েকবার নামাতে হয়েছে (একবার 47%, একবার 83% এবং 97% এ যেয়ে আটকে গেছে

রিভিউ

কোথাও কেউ নাটকের রিভিউ লেখা নেহায়েৎ বোকামী! তাও লিখতে বসেছি। মনের কিছু কথা যদি ব্লগেই না লিখি কোথায় লিখব !

নাটকের বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় যারা করেছেন তারা হলেনঃ

  1. সুবর্ণা মোস্তফা – মুনা
  2. আসাদুজ্জামান নূর – বাকের ভাই
  3. আবদুল কাদের – বদি
  4. মাহফুজ আহমেদ – মতি
  5. আফসানা মিমি – বকুল
  6. উকিল – হুমায়ূন ফরিদী

এছাড়া আরো বিভিন্ন চরিত্রে বিভিন্ন শক্তিমান অভিনেতা অভিনয় করেছেন। তাদের অনেকেই এখন মৃত। তাদের অভিনয় যা ছিল! সত্যিই অতুলনীয়!!!

নাটকের কাহিনী হিসেবে বলা যায় বাকের ভাই রাস্তার এক ফটকা যুবক! বদি ও মজনুকে নিয়ে পথে পথে ঘুরে। দরকার হলে কাওকে ঘষা বা ডলা দিয়ে দেয়! মুনা হল এক দরিদ্র পরিবারের মেয়ে। নিজেই চাকরী করে এবং তার মামার ছেলে মেয়েদের কে দেখাশোনা করে। মাঝের ইতিহাস বিশাল! বিরাট ট্রাজেডি আছে নাটকে। এক্কেবারে শেষে বাকের ভাইয়ের ফাঁসি হয়ে যায় তাও বিনা কারণে। কোন ক্ষুণ কিংবা রক্তারক্তি পর্যন্ত সে করেনি! বুকটা দুঃখে ভেঙে গেল তখন! বাকের ভাইয়ের ফাঁসি মানতে পারলাম না!

হিমু ও বাকের ভাই

অভিনয় এর কথা স্পষ্ট ভাবে উল্লেখ করতে হয়! সকলের অভিনয়ই অতুলনীয়। আগেকার নাটক যে কিরকম পাওয়ারফুল ছিল তা দেখলে বোঝা যায়। এই নাটক দেখার পর এ যুগের নাটক দেখলে মনে হতে পারে এরা তো ফাইজলামী করছে। নাটক নয়! নাটকের কিছু কিছু ডায়লগ এতো রিয়েলিস্টিক এবং টাচিং যে আপনার চোখ হতে এক ফোঁটা জল পড়ারও সম্ভাবণা রয়েছে। So Be Careful To Watch!

আশার কথা হল বাকের ভাই নাকি আবার ফিরবেন। এই রমযানে রেদোয়ান রনির পরিচালনায় একই নাটকে অভিনয় করবেন হিমু, বড়চাচা, বাকের ভাই এবং অন্যান্য রা। প্রথম আলো থেকে যা জেনেছি তা হল নাটকের কাহিনী হবে

হুমায়ূন আহমেদের কোথাও কেউ নেই নাটকে ফাঁসি হয়েছিল বাকের ভাইয়ের। মুনার চোখে আজও পানি ঝরে। মুনার দুঃখ সহ্য করতে পারে না হিমু। পণ করে বাকের ভাইকে খুঁজে বের করবে। হিমুর কথা শুনে সবাই তাকে পাগল বলে। হিমু সত্যি সত্যি বাকের ভাইকে স্বপ্নে দেখে এবং তাকে খুঁজতে থাকে। মুনাকে বলে সে বাকের ভাইকে দেখাবে। মুনার দুই চোখ ভরা বিস্ময়। কোনটা সত্যি?
একদিন সত্যি সত্যি হিমুর সঙ্গে দেখা হলো বাকের ভাইয়ের। বাকের ভাইয়ের অনেক কষ্ট। বদির খোঁজ জানতে চায়। মজনু কোথায়? আর মুনা, ও কী আগের মতোই আছে?
নির্মাতা রেদোয়ান রনি এভাবেই বাকের ভাই ও হিমুকে মুখোমুখি করেছেন। আসছে ঈদে দেশ টিভির জন্য সাত দিনব্যাপী বাকের ভাই, হিমু শিরোনামে যে ধারাবাহিক নাটক তৈরি করছেন রনি, এটি ছিল সেই নাটকেরই শুটিংয়ের দৃশ্য।
রনি বললেন, ‘কাজটা করতে গিয়ে আমরা সবাই রোমাঞ্চিত হচ্ছি। অসাধারণ কিছু অভিজ্ঞতা অর্জন করছি আমরা।’
নাটকে বাকের ভাই চরিত্রে অভিনয় করছেন আসাদুজ্জামান নূর, মোশাররফ করিম, সুবর্ণা মুস্তাফাসহ আরও অনেকে।

আশা করি নাটক টা ভাল হবে। যারা নাটকটা দেখেন নি অবশ্যেই দেখবেন।
এজন্য আমার নাটক থেকে ডাউনলোড করে দেখতে পারেন।

আর নাটকের রেটিং দেওয়াটাও বোকামী। কারণ এদেশের সবচেয়ে অধিক জনপ্রিয় নাটকের মধ্যে এটি ছিল অন্যতম। অবশ্যই যততে রেটিং তারচেয়ে বেশী পাওয়া উচিৎ এই নাটকের। আর হুমায়ূন আহমেদ যে কত বড় মাপের ডিরেক্টর তা এ থেকেই বোঝা যায়।

“পরীক্ষা হল শেষ! | “কোথাও কেউ নেই” নাটকের রিভিউ”-এ 4-টি মন্তব্য

  1. সুন্দর রিভিউ আমি অনেক আগেই এ নাটক লাইভ টিভি-তে দেখেছিলাম। আপনার রিভিউ পড়ে ভাবছি আবার দেখবো। কত মেগা ডালো দিতে হবে…Ctrl+A তারপর Alt+Enter দিয়ে একটু কস্ট করুন।

মন্তব্য করুন