মুভি রিভিউ: Percy Jackson and the Olympians, I Am Legend, Avatar

অনেকদিন মুভি দেখার সময় হচ্ছিল না…
যা দেখেছি তাও হিন্দী মুভি … ইংলিশ মুভি দেখার সময়ই হচ্ছিল না!
তার উপর আবার পরীক্ষার চাপ ! গতকাল ২ মে ২০১০ তারিখ দুপুর ২:৪৫ মিনিটে ১ম মেয়াদী পরীক্ষার সব শেষ হল ! মনে এখন ফূর্তি ! এই ফাঁকে দেখতে বসে গেলাম হাতের কাছে থাকা মুভিগুলো

যেকটা মুভি দেখেছি

  • পার্সি জ্যাকসন এন্ড দি অলিম্পিয়ানস:দি লাইটেনিং থীফ (Percy Jackson and the Olympians: The Lightening Thief)
  • আই এম লিজেন্ড (I Am Legend)
  • আভাটার (Avatar)

পার্সি জ্যাকসন ছবিটার কথা দিয়েই শুরু করি!

Percy Jackson and the Olympians: The Lightening Thief

ছবিটি এক কথায় চমৎকার ! যারা একটু ম্যাজিকাল টাইপ ছবি দেখতে ভালবাসেন ছবিটি ভাল লাগবে তাদের নিশ্চিতভাবেই।প্রাচীন গ্রীক দেবতাদের নিয়ে অবতীর্ণ হয়েছে এর কাহিনী। দেখা যাবে আট দশটা ছেলের মতই সাধারণ এক ছেলে পার্সি। কিন্তু সে যে পানির দেবতার ছেলে তা সে জানে না। কিন্তু দেবতা জিউসের Weapon চুরি করার অভিযোগে সকল দেবতারা তার উপর রাগান্বিত হয় এবং এ ধারণার বশবর্তী হয়ে জিউসের Weapon Lightening Bolt জোরপূর্বক কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করা হতে থাকে। এভাবেই ছবির কাহিনী এগোতে খাকে… ছবির মধ্যে ক্লাইম্যাক্স, একশান এবং স্টোরিটেলিং খুবই ভাল হয়েছে বলা যায় নিশ্চিত ভাবেই। আরো একটা কথা যোগ করা দরকার যে এই ছবির পরিচালনা করেছেন হ্যারি পটারের প্রথম তিনটি ছবির পরিচালক Chris Columbus. তার অসাধারণ ডিরেকশানের জন্য ছবির প্রতিটা মুহূর্তেই রয়েছে উত্তেজনা।বাকিটুকু নিজেরাই দেখে নিবেন।

পার্সি জ্যাকসান পোস্টার

ব্যাক্তিগত রেটিং 9.9/10!

I Am Legend

আই অ্যাম লিজেন্ড ছবিটির পটভূমি টা চমৎকার! দেখানো হয় যে ক্যানসারের প্রতিষেধক আবিষ্কার করতে গিয়ে বিজ্ঞানীরা একটি ভয়ংকর রোগের সৃষ্টি করেন। ফলে মানুষেরা রোদে বের হতে পারে না এবং সবসময় ছায়ার মধ্যে থাকে। এরা রক্ত মাংসের প্রানী কাঁচা ভক্ষন করে। বলা যায় দানব প্রকৃতির জীবে পরিণত হয়। কিন্তু এর মধ্যে কয়েকজন সেই ভাইরাসের আক্রমণ থেকে বেঁচে যায় তার মধ্যে উইল স্মিথ একজন। সে নিজেই এর প্রতিষধক আবিষ্কার করতে চায় এবং পরবর্তীতে … (নিজেরাই দেখে নিন)

ব্যাক্তিগত রেটিং 8.5/10

I am Legend পোস্টার

Avatar

জেমস ক্যামেরনের আভাটার সম্পর্কে নতুন করে কিছু বলার নেই। ছবিটি ইতিমধ্যে এতবার আলোচিত হয়েছে যে মানুষ কিছু্ আর এর বাকি নেই। আমার ছবিটি ভাল লেগেছে। তবে সেইরকম আহামরি ছবি নয়। আহামরি যদি হয়েই থাকে তাহলে এর গ্রাফিক্সের কাজের জন্য। আভাটারের যে জগৎ টি দেখানো হয়েছে নিঃসন্দেহে চমৎকার জগৎ! নিজের অজান্তে মানুষ বলেও ফেলতে পারে “আহ যদি এমন জগৎ থাকত!” যাই হোক ইফেক্টগুলো জট্টিল।

ব্যাক্তিগত রেটিং দিব 7/10

আজকের মত এখানেই শেষ করছি …

18 comments
  1. অভ্রনীল
    অভ্রনীল
    মে 3, 2010 at 3:42 অপরাহ্ন

    আমি পার্সি জ্যাকসনের ফ্যান- বই ও ছবি – দুটোরই। হ্যারি পটারের পরই এই সিসরিজটা আমার পছন্দের। আমার আরেকটা পছন্দের সিরিজ “এ্যাভাটারঃ দা লাস্ট এয়ারবেন্ডার” নিয়ে ছবি আসছে এই সামারেই!

    আই এ্যাম লিজেন্ড সেরকম আহামরি লাগেনি, তবে ভালো লেগেছে।

    এ্যাভাটার ছবি নিয়ে লোকে যত হৈচৈ করেছে, থ্রিডি না দেখলে সেই হৈচৈ এর কোন মানে নাই! ছবির কাহিনী ডিজনি’র “আটলান্টিস” ও “পোকাহান্তাস” থেকে মেরে দেয়া। আমি রেটিং দিলে দিব ৪/১০, এবং এই ৪ পুরোটাই স্পেশাল এফেক্টের জন্য, অন্য সব ডিপার্টমেন্টে শূন্য!

    Reply
    • সাইফ দি বস ৭
      সাইফ দি বস ৭ • Post Author •
      মে 3, 2010 at 3:46 অপরাহ্ন

      এই আভাটার পুরাটায় স্পেশাল এফেক্ট এর জন্যই এই পর্যন্ত আসতে পেরেছে… যেখানে ডাইরেক্টর ক্যামেরন .. আরেকটু বেশী আশা করাই যায়!

      পোকাহান্তাস আর আটলান্টিস … একটাও দেখা হয় নি ! আপনি যে ছবির নাম বললেন ঐটা বের হইলে একটু খবর দিয়েন!

      Reply
      • অভ্রনীল
        অভ্রনীল
        মে 3, 2010 at 5:56 অপরাহ্ন

        আমি কিন্তু কার্টুনের পাঁড়ভক্ত। অনেকের ধারণা কার্টুন মানেই বাচ্চাদের জন্য আর যারা কার্টুনের ভক্ত তারা বুঝি সব কার্টুনই দেখে। ব্যাপারটা ভুল। এখানেও পছন্দের ও রুচির ব্যাপার আছে। যেমন নারুটো বা পোকেমন বা বব-দা-বিল্ডার ইত্যাদি কার্টুন আমার কাছে ভালো লাগেনা। যাই হোক… এত কথা বললাম এজন্য যে, কার্টুন ফ্যান না হলে এটা তোমার কতটুকু ভঅলো লাগবে বলা মুশ্কিল!

        এ্যাভাটারের একটা রিভিউ পাবে এইখানে। এটার এ্যানিমেশান সিরিজটা ছিল অসাধারণ, নিকেলোডিওনে দেখাতো। প্রথমদিকে খাপছাড়া ভাবে দেখে কিছু বুঝিনাই, পরে একদিন কি মনে করে একেবারে প্রথম পর্বটা ডাউনলোড করে দেখলাম, তারপর দ্বিতীয় পর্বটা এবং এভাবে টানা পুরো তিন সিজন দেখে ফেললাম! খুব ভয়ে আছি সিনেমা বানাতে গিয়ে না আবার অসাধারণ এই এ্যানিমেশানের বারোটা বাজিয়ে দেয়। এখনো পর্যন্ত ট্রেইলার দেখে ভালোই মনে হচ্ছে। নিচে সর্বশেষ ট্রেইলারটা দিলাম।
        [youtube=http://www.youtube.com/watch?v=aS7REmShhxY]

        Reply
        • সাইফ দি বস ৭
          সাইফ দি বস ৭ • Post Author •
          মে 3, 2010 at 6:26 অপরাহ্ন

          ট্রেইলার তো দেখলাম ! চরম লাগল! অবশ্য নায়কটা টাকলু ক্যান? বলদ বলদ লাগতেছে !
          আচ্ছা Percy Jackson and the Olympians সিরিজের আরো ছবি আছে নাকি? আর বইগুলো থাকলে একটু ডাউনলোড লিংক দিয়েন প্লিজ !

          Reply
          • অভ্রনীল
            অভ্রনীল
            মে 4, 2010 at 2:59 অপরাহ্ন

            আরো ছবি নাই, এটাই প্রথব পর্ব। তবে বই এখন পর্যন্ত আছে পাঁচটা। এসব বই কম্পুতে পড়ে মজা নাই। বিছানায় আধশোয়া হয়ে কাগজের বই পড়ার মজাই আলাদা। ইটিসি বা বুকওয়ার্মে পাবে এইসব বই। মাঝে মাঝে বেইলিরোডের বইয়ের দোকানেও পাওয়া যায়। নীলক্ষেতে পুরনো বই হলে সমস্যা নাই, কিন্তু ফটোকপি বই গুলোতে সমস্যা হয়- প্রিন্ট থাকে খুবই বাজে, পৃষ্ঠা উল্টাপাল্টা হয়, মাঝে মাঝে অর্ধেক ছিঁড়া পৃষ্ঠাও পাওয়া যায়, আর এত পাতলা কাগজে ছাপায় যে পরের পৃষ্ঠার লেখাও পড়া যায়!

  2. মেরাজ০৭
    মেরাজ০৭
    মে 3, 2010 at 5:20 অপরাহ্ন

    ভালই রিভিউ।

    @ অভ্রনীল ভাইঃ ছবিটার নাম শুধু “দা লাস্ট এয়ারবেন্ডার”। এভাটার নাম হলেও এটা রেজিস্টার করতে পারেনাই ক্যমেরনের এভাটারের জন্যে।
    ছবিটা অয়সম হবে। দেখতে হবে।

    Reply
    • অভ্রনীল
      অভ্রনীল
      মে 3, 2010 at 6:03 অপরাহ্ন

      এই জন্য ক্যামেরনের উপর আমি অ-তি-শ-য় ক্ষিপ্ত! ব্যাটার ভাগ্য ভালো যে আমার হাতের কাছে থাকেনা… মজার ব্যাপার হল ওর টার্মিনেটর-টু ছাড়া আর কোন ছবিই আমার ভালো লাগেনাই!

      Reply
      • সাইফ দি বস ৭
        সাইফ দি বস ৭ • Post Author •
        মে 3, 2010 at 6:24 অপরাহ্ন

        ক্যান? টাইটানিক তো চরম !

        Reply
        • অভ্রনীল
          অভ্রনীল
          মে 4, 2010 at 3:03 অপরাহ্ন

          হে হে হে … এই ছবিটা আমি এখনো পর্যন্ত পুরাটা দেখিনাই। একবার শুরু করসিলাম, বড়জোড় আধাঘন্টা দেখে বন্ধ করে দিলাম, কে যেন বলল যে জাহাজ ভাঙার দৃশ্য নাকি মারাত্মক, পরে শেষের দিকের ঐ ‘মারাত্মক’ দৃশ্যটাই খালি দেখলাম।

          (সংবিধিবদ্ধ সতর্কীকরণঃ আমি আবার পুতুপুতু রোমান্টিক ছবি দেখতে পারিনা!)

          Reply
          • সাইফ দি বস ৭
            সাইফ দি বস ৭ • Post Author •
            মে 4, 2010 at 3:27 অপরাহ্ন

            টাইটানিক পুতুপুতু রোমান্টিক ছবি হলেও লাস্টের ট্রাজেডি AWESOME !

  3. সারিম খান
    সারিম খান
    মে 4, 2010 at 1:54 অপরাহ্ন

    অভ্রনীল ভাই আপনাকে আমি কোলে নিয়া নাচব। অ্যাভাটার আমার কাছেও ফাউল লাগছে। পুরা ফাউল। আমি ৩ / ১০ দিবো।

    @সাইফ
    গ্রিক মিথলজি আমার খুবই পছন্দের বিষয়। ক্লাশ অব দ্যা টাইটান দেখলাম কয়েকদিন আগে, মোটামোটি ৬ / ১০ । কাহিনী ওলিম্পিয়ান গডদের নিয়ে কিন্তু নাম দিছে টাইটান। এইটাই খারাপ লাগছে।

    আর উইল স্মিথের নাম দেখেই তো ২নং টা দেখব।
    ধন্যবাদ রিভিউ দেওয়ার জন্য ।
    লিংক ফিংক থাকলে একটু মেইলে স্বরণ করইরেন

    Reply
  4. শাওন দি বস ৪ (sawontheboss4)
    শাওন দি বস ৪ (sawontheboss4)
    মে 4, 2010 at 2:45 অপরাহ্ন

    প্রথম ছবি টা দেখলাম। ভালোই লাগছে, তবে বাচ্চাদের মুভি লাগছে। বিশেষ করে তৃতীয় পার্ল টা যখন রিকভার করে, মারামারি তো পুরা বাংলা কাহিনী… তবে পাথর করে দেবার আইডিয়া তো খুবই ফানি, মেডুসা কেলেঙ্কারী আর কী!

    Reply
  5. সারিম
    সারিম
    মে 4, 2010 at 11:48 অপরাহ্ন

    থেংকু থেংকু,
    কিন্তু এ সপ্তাহে এত বিজি মনে হয় দেখার সময় হবে না।

    মাঝে মাঝেই এরকম মুভির রিভিউ দিবেন, তাইলে আমাদের মুভি খোজার কষ্ট করবে।

    Reply
    • সাইফ দি বস ৭
      সাইফ দি বস ৭ • Post Author •
      মে 5, 2010 at 9:21 পূর্বাহ্ন

      আচ্ছা ! ঠিকাছে !

      Reply
  6. সাইফ
    সাইফ
    মে 9, 2010 at 12:41 পূর্বাহ্ন

    Percy Jackson and the Olympians: The Lightening Thief ছবির রিভিউ এর জন্য ধন্যবাদ। এখন একটাই চিন্তা কোথায় যে পাই..
    I Am Legend ছবিটা কযেক বার দেখেছি.. আমার কাছে যেটা আছে সেটা *.ivr ফরম্যাটের 294 মেগা জটিল প্রিন্ট।
    Avatar দেখেছি ২ বার। প্রথম বার খুব উপভোগ করেছি। জঙ্গলে বিভিন্ন প্রাণীগুলা জোস লেগেছে। ২য় বার যখন দেখি তখন আগে মত ভাল লাগেনি।

    Reply
    • সাইফ দি বস ৭
      সাইফ দি বস ৭ • Post Author •
      মে 9, 2010 at 2:17 অপরাহ্ন

      অবতার (Avatar) ভালৈ লাগে নাই!

      Reply
  7. সাইফ
    সাইফ
    মে 10, 2010 at 12:00 পূর্বাহ্ন

    Percy Jackson and the Olympians: The Lightening Thief এর লিঙ্ক পাইছি…কিন্তু ভাল প্রিন্ট না…
    কেউ কি দয়া করে লিঙ্ক দিবেন।

    Reply
Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *