আজ থেকে শুরু হচ্ছে NCL (National Cricket League)

পি সি এল শেষ হওয়ার সাথেই সাথেই শুরু হতে যাচ্ছে টি টোয়েন্টির আরেকটি বড় টুর্নামেন্ট !
নাম হচ্ছে NCL (National Cricket League)
অনেকটা আইপিএলের আদলে তৈরী এ টুর্নামেন্ট সফল হবে এ ধারণাই করা হচ্ছে !
আরো বাড়তি আকর্ষণ হিসেবে রয়েছে পাকিস্তানী খেলোয়াড়দের উপস্থিতি !
বিশেষ করে চট্টগ্রাম সাইক্লোনে শোয়েব আখতারের উপস্থিতির জন্য সবাইই চমকেছে !
(আজ 7:45 মিনিটে এটিএন এ চট্টগ্রাম সাইক্লোন ও রাজশাহী রেন্জার্স এর ম্যাচ!)

ঘরোয়া ক্রিকেটের নতুন রূপ এনসিএল, জাতীয় ক্রিকেট লীগে প্রথমবারের মত সংযোজন এটি। বেশ ঘটা করে এর উদ্ভাধন হওয়ার কথা থাকলেও অনেকটা স্বল্প সময়ে টুর্নামেন্ট কমিটি যথাসাধ্য চেষ্টা করে যাচ্ছেন এনসিএলের প্রথম আয়োজনকে যেন ক্রিকেট পাগল দর্শকরা অনেকদিন মনে রাখে।

আইপিএলকে অনুসরণ করতে গিয়ে এনসিএলে রূপ দিচ্ছে ভিন্ন পদ্ধতি, দলগুলোকে ফ্রেঞ্চাইসিস নামকরণ, ফ্রেঞ্চাইসিস পদ্ধতিতে দলগুলোকে বিক্রী করা, এমনকি ক্রিকেটারদের নিলাম বাজারে ঠেলে দিয়ে পছন্দমত ক্রিকেটারদের দলে ভেড়ানো। অনেক নতুনত্বের ছোঁয়া রয়েছে টুর্নামেন্ট শুরুর আগ মুহূর্তে। আজ মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে বিকাল সাড়ে পাঁচটায় এনসিএলের শান্তির পায়রা আকাশে উড়ার সাথে সাথে এনসিএলের জমজমাট পর্দাও উঠবে। উদ্ভোধনী দিনে মাত্র একটি খেলা অনুষ্ঠিত হবে। চট্টগ্রাম সাইক্লোনের সাথে রাজশাহী রেঞ্জার্স খেলবে রাত পৌনে আটটায়। তবে তার আগে গোটা মিরপুর আকাশে এনসিএলের উদ্ভোধন অনুষ্ঠান উড়বে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান জমজমাট করার প্রাণন্ত চেস্টা চালিয়ে যাচ্ছে এটিএন রেকর্ডস। ইতিমধ্যে অর্থ মন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করবেন বলে সম্মতি দিয়েছেন বলে জানা যায়। বিকেল সারে পাঁচটায় হবে সে উদ্বোধন।

প্রথমে দলগুলোর সাথে পরিচিত পর্ব, ছয় দলের ছয় অধিনায়ক এবং দলের খেলোয়াড়রা জার্সি গড়ে মাঠে নিজেদের পরিচয় করিয়ে দিবেন। খেলোয়াড় পরিচিতি শেষ হয়ে মাঠে শুরু হবে জমজমাট অনুষ্ঠান। এর মধ্যে রয়েছে মাঠে ‘ঈগল গ্রুপের’ নৃত্য। মাঠের আরেক প্রান্তে সাইড স্ক্রিনের পাশে বসানো বিশেষ মঞ্চে জনপ্রিয় ব্যান্ড দলের গান পরিবেশন। ব্যান্ডসংগীত শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর এল আর বি থাকবে বলে টুর্নামেন্ট কমিটি থেকে জানা যায়। গানের পরপরই শুরু হবে চোখ ধাঁধাঁনো লেজার শো এবং আতশবাজি। মাগরিবের নামাজের জন্য কিছুটা বিরতি থাকলেও টানা দুই ঘন্টা চলবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানের পরই মাঠে নামবে রাজশাহী রেঞ্জার্স ও চট্টগ্রাম সাইক্লোন।

এনসিএলের প্রতিটি দল একে অপরের বিপক্ষে রাউন্ড রবিন লীগ পদ্ধতিতে খেলবে। প্রত্যেকটি দলই বেশ ঘোছানো। ঢাকা ডাইনামাইটসের আশরাফুল, চট্টগ্রাম সাইক্লোনের তামিম ইকবাল, সিলেট সুলতানের মাশরাফি বিন মুর্তজা, রাজশাহী রেঞ্জার্সের খালেদ মাসুদ পাইলট, বরিশাল ব্লেজার্সের শাহরিয়ার নাফীস এবং খুলনার কিংসকে নেতৃত্ব দেয়া সাকিব আল হাসান থাকছেন প্রতিটি দলের আইকন হিসেবে, সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে দলকে চ্যাম্পিয়নের পাশাপাশি বিশ্বকাপের আগে নিজেদের সেরা প্রস্তুতিও নিতে চান এখান থেকে। তবে সবার আগে চাই পারফর্মেন্স, টুর্নামেন্ট শুরুর আগে প্রত্যেকটি দল সাংবাদিকদের সামনে নিজেদের প্রস্তুতির কথাও তুলে ধরেন। তবে স্বল্প সময় হলেও এনসিএল বেশ জনপ্রিয়তা পাবে বলে টুর্নামেন্ট কমিটি মনে করছে।

এনসিএলের প্রথম দিন একটি খেলা অনুষ্ঠিত হলেও এরপর প্রত্যেকদিন তিনটি করে খেলা অনুষ্ঠিত হবে। মোট ম্যাচ ১৮টি এরমধ্যে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ১৫টি এবং বিকেএসপিতে ৩টি ম্যাচ হবে। এবং প্রতিটি দল একবার করে বিকেএসপিতে খেলবে, টুর্নামেন্ট ফিকচারও সেভাবে তৈরি করা হয়েছে। মিরপুরে ১৫টি ম্যাচের মধ্যে ৫টি ম্যাচ রাতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এটিএন বাংলা ১৫টি ম্যাচ মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়াম থেকে সরাসরি সম্প্রচার করবে। দর্শকদের মাঠে টানতে এবং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ম্যাচ রাতে খেলতে হবে বিধায় ফ্লাড লাইটে খেলার অভ্যেস গড়ে তোলার জন্য মিরপুরে ফ্লাড লাইটে ম্যাচ দিয়েছে টুর্নামেন্ট কমিটি।

এনসিএলের শীর্ষে চার দল এবং চার দলের খেলোয়াড়রা আর্থিক দিক থেকে বেশ লাভবান হবেন। কারণ, চ্যাম্পিয়ন দল পাবে ১ লাখ মার্কিন ডলার, আর রানার্সআপ দল পাবে ৫০ হাজার মার্কিন ডলার। তবে স্বল্প সময় হলেও আগামী এনসিএল দর্শকদের জন্য আরো বিশেষ কিছু এনে দিবে বলেও টুর্নামেন্ট কমিটি আশ্বাস দিয়েছেন।

NCL Fixture

১১ এপ্রিল রাত ৭:৪৫ চট্টগ্রাম সাইক্লোন-রাজশাহী রেঞ্জার্স মিরপুর

১২ এপ্রিল সকাল ৯:৩০ চট্টগ্রাম সাইক্লোন-সিলেট সুলতান মিরপুর

ঐ সকাল ১০:৩০ রাজশাহী রেঞ্জার্স-খুলনা কিংস বিকেএসপি

ঐ দুপুর ২:২০ ঢাকা ডাইনামাইটস-বরিশাল ব্লেজার্স মিরপুর

১৩ এপ্রিল সকাল ৯:৩০ রাজশাহী রেঞ্জার্স-বরিশাল ব্লেজার্স মিরপুর

ঐ সকাল ১০:৩০ ঢাকা ডাইনামাইটস-সিলেট সুলতান বিকেএসপি

ঐ দুপুর ২:২০ চট্টগ্রাম সাইক্লোন-খুলনা কিংস মিরপুর

১৪ এপ্রিল দুপুর ১টা রাজশাহী রেঞ্জার্স-সিলেট সুলতান মিরপুর

ঐ সকাল ১০:৩০ চট্টগ্রাম সাইক্লোন- বরিশাল ব্লেজার্স বিকেএসপি

ঐ বিকাল ৫:২০ ঢাকা ডাইনামাইটস- খুলনা কিংস মিরপুর

১৬ এপ্রিল দুপুর ১টা চট্টগ্রাম সাইক্লোন-ঢাকা ডাইনামাইটস মিরপুর

ঐ বিকাল ৫:২০ সিলেট সুলতান-বরিশাল ব্লেজার্স মিরপুর

১৭ এপ্রিল সকাল ৯:৩০ সিলেট সুলতান-খুলনা কিংস মিরপুর

ঐ দুপুর ২:২০ ঢাকা ডাইনামাইটস-রাজশাহী রেঞ্জার্স মিরপুর

১৮ এপ্রিল দুপুর ২:২০ বরিশাল ব্লেজার্স-খুলনা কিংস মিরপুর

১৯ এপ্রিল দুপুর ১টা পজিশন২-পজিশন৪ মিরপুর

ঐ বিকাল ৫:২০ পজিশন১-পজিশন৩ মিরপুর

২০ এপ্রিল সময় নির্ধারণ হয়নি ফাইনাল মিরপুর

সূত্র

মন্তব্য করুন