কিন্ডল ৪র্থ জেনারেশন এবং শর্ট রিভিউ [কিছু ছবি]

Back on আমার ঠিকানা… !!! AGAIN!

গত ১ বছর আমার ঠিকানা… তে তেমন কোন পোস্ট ই দিতে পারি নি! প্রায়ই মানুষজন মেইল করছে কেন লিখছি না! 🙁 আসলে আগের মত সময় দিতে পারি না এখন আর। তবে চিন্তা করেছি এখন আবার বাংলায় ব্লগিং শুরু করব। আগের মত অত নিয়মিত না হলেও মাসে কমপক্ষে ২টি পোস্ট দেওয়ার চেষ্টা থাকবে আমার। 🙂

আজকের টপিক: আমার নতুন কেনা কিন্ডল ফায়ার (৪র্থ জেনারেশন), কিছু ছবি এবং একটি শর্ট রিভিউ।

কিন্ডল কেন?

কিন্ডল হল বই পড়ার এক নম্বর ডিভাইস। বইয়ের প্রতি আমার মোহ সেই ছোটবেলা থেকেই। তিন গোয়েন্দা, মিসির আলী, হুমায়ূন আহমেদ, জাফর ইকবাল, আইজ্যাক আসিমভ, জেকে রাউলিং, ড্যান ব্রাউন, অনুবাদ – কোন কিছুতেই তেমন আপত্তি নাই (সাধু ভাষা না হলেই চলবে)

প্রথমে আমার ইচ্ছা ছিল আইপ্যাড কেনার। কিন্তু প্রথম সমস্যা ছিল কস্ট। প্রাইস যদিও কাভার করে ফেলেছিলাম তখন iPad1 এর ডেমো নিলাম ১৫দিনের জন্য (উনার কাছ থেকে কেনার কথা ছিল। কেনার আগে ভাবলাম ১৫দিনের ট্রায়াল দি)। ১৫ দিন পর আমার মনে হয়েছে আইপ্যাড অবশ্যই ইবুক পড়ার জন্য খুবই উপযোগী যদি না সে লংটাইম রিডার হয়। কারণ LCD স্ক্রিনের আলো চোখে সহ্য হবে না বেশীক্ষণ। আর iPad1 টা একটু ভারীই। বুকের উপর রেখে পড়তে কষ্ট হত। তখন ই সিদ্ধান্ত নিলাম কিনে ফেলব Kindle.

 

চাচীর মাধ্যমে হাতে পেলাম $79 ডলারের কিন্ডল 4th Gen (এখন যেটা $69 ওটাই। শুধুমাত্র ১/২টা ডিফারেন্স আছে)

ছবিগুলো:

কিন্ডল ৪ বক্স
কিন্ডল ৪ বক্স
কিন্ডল ৪ বক্স
কিন্ডল ৪ বক্স
ই ইংক ডিসপ্লের কিন্ডল
ই ইংক ডিসপ্লের কিন্ডল

 

শর্ট রিভিউ কিন্ডল:

জিনিসটা বেশ! বই পড়ার মজা এখন হয়ে গেছে দ্বিগুণ! আমার কাছে পিসিতে বহু পিডিএফ বই আছে যেগুলা টাকা দিয়ে কিনতে গেলে ফতুর হয়ে যাব! এখন সে সব বই নিয়ে নিয়েছি কিন্ডলে! 6 ইঞ্চির কিন্ডলে আরামসে বই পড়তে পারি। আইপ্যাডের মত স্মুথ ফিলিং পাবেন না কিন্তু ই-ইংক ডিসপ্লের ধারের কাছেও আসতে পারবে না LCD. তাছাড়া দামটাও বিবেচনা করতে হবে। iPad যেখানে $499 সেখানে $69. ৫গুণ বেশী দাম প্রায়!

কালকে মিসির আলীর বই পড়ে যে মজা পেয়েছি বলার মত নয়! স্ক্রিনটা এত জোস! মনেই হয়না স্ক্রিন! কাগজ মনে হয়!!! আর সাইজটাও কম্প্যাক্ট! বাংলা ফন্ট রেন্ডার করতে কোন ঝামেলা হয় না (PDF format এর বইতে)! তবে পোর্টেট মোডে পড়তে গেলে বাংলা লেখা অনেক ক্ষুদ্র আসে যে আরাম করে পড়া যায় না। কিন্ডলের জুম আইপ্যাডের মত স্মুথ না। তাই ল্যান্ডস্কেপ মোডে পড়ি। কোন সমস্যা হয় না। কিন্ডল ফরম্যাটের বইয়ের কথা বাদই দিলাম! ওগুলা তো পুরাই অসাম লাগে পড়তে! big_smile আমি এখনও ফুল টাইম ইংলিশ বুক রিডার না তাই আর কি তেমন পড়া হচ্ছে না ইংলিশ বই!

 

আপনি কি কিনতে চান? তাহলে শুনুন

আপনার যদি ইবুক রিডারের দরকার হয় তাহলে কিন্ডল খুবই ভাল চয়েজ। তবে এখন কিনলে অবশ্যই কিন্ডল পেপারহোয়াইট কিনবেন কারণ এতে রাতেও লাইট না জ্বালিয়ে বই পড়া যায়। আপনি যদি আমার মত বইপাগল না হন মানে লংটাইম রিডার না হন তাহলে Kindle না কিনে Nexus 7 কিনুন।

 

আজকের মত এখানেই বিদায়! বাই বাই!

Price: $79

 

“কিন্ডল ৪র্থ জেনারেশন এবং শর্ট রিভিউ [কিছু ছবি]”-এ 15-টি মন্তব্য

  1. পেপারহোয়াইট-টা কি ঢাকার মার্কেটে পাওয়া যায়? যদ্দুর দেখলাম, ওটার মেমোরি বেশ কম। মাত্র ২ গিগাবাইট। এর মধ্যে কেবল ১গিগাবাইটের মতো ব্যবহারযোগ্য।

    কিন্ডল টাচটাও মন্দ না। তবে এটায় ল্যান্ডস্কেপ মোডে পড়া যায় কিনা সে ব্যাপারে নিশ্চিত নই। এ ব্যাপারে কিছু জানেন কি?

    একটি ব্যাপারে আমি আপনার সাথে একমত ‒ বাংলা স্ক্যান করা পিডিএফ ফাইলগুলো লম্বালম্বি পড়লে ফন্ট বেশ ছোট হয়ে যাবে।

    • আমি ঠিক জানি না ঢাকার বাজারে পাওয়া যাবে কিনা। স্যরি! আমার কিন্ডলের একমাত্র চাহিদা বই পড়া। ২জিবি শুধুমাত্র বই পড়ার জন্য বহুত। আমি এখনও আমার ১জিবি পূর্ণ করতে পারি নাই।

      কিন্ডল টাচে প্রথমে ল্যান্ডস্কেপ মোডে পড়া যেত না। কিন্তু ফার্মওয়্যার আপগ্রেডের পর ল্যান্ডস্কেপ মোড যুক্ত হয়েছে।

মন্তব্য করুন